প্রবেশদ্বার:বিজ্ঞান


ইকিপিডিয়া
বিজ্ঞা


বিজ্ঞান

বিজ্ঞান হল এমন এক ধরণের জ্ঞান যা পর্যবেক্ষণ, প্রকল্প বাস্তবায়ন, পরীক্ষণ এবং কোন বিষয়ের ব্যাখ্যা বা ঘটনার ভবিষ্যৎবাণীর কারণ দেখানোর ক্ষেত্রে যুক্তি প্রমাণ উপস্থাপনের মাধ্যমে গঠিত হয়। পর্যবেক্ষণ, পরীক্ষণ এবং সূক্ষ্ণতর কারণ ব্যাখ্যন, এ সবই বিজ্ঞানের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। এর পাশাপাশি বিজ্ঞানের জগতে নিয়মানুবর্তিতা অত্যন্ত প্রয়োজনীয় যা বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে কাজ করার জন্য আবশ্যক। এ ধরণের পদ্ধতির মথ্যে প্রথমেই আসে প্রস্তাবিত প্রকল্পকে উপযুক্ত পরীক্ষণ এবং যুক্তির মাধ্যমে সত্যায়িতকরণ। এ ধরণের সত্যায়িত প্রকল্প সময়ের প্রয়োজনে এক সময় সত্যের মানদন্ড হিসেবে পরিগণিত হয় এবং কালক্রমে একটি সূত্রের মর্যাদা পায়; তবে বিজ্ঞানে কোন কিছুই অপরিবর্তনীয় নয়। পরবর্তীতে অধিক নির্ভরযোগ্য তত্ত্ব এই প্রতাষ্ঠিত তত্ত্বকেও নাকচ করে দিতে পারে। এভাবেই এগিয়ে চলে বিজ্ঞান।

নিবন্ধ


হেল-বপ ধুমকেতু

ধুমকেতু (ইংরেজি: Comet কমেট্‌) হল ধুলো, বরফগ্যাসের তৈরি এক ধরনের মহাজাগতিক বস্তু। ধূমকেতু একটি ক্ষুদ্র বরফাবৃত সৌরজাগতিক বস্তু যা সূর্যের খুব নিকট দিয়ে পরিভ্রমণ করার সময় দর্শনীয় কমা (একটি পাতলা, ক্ষণস্থায়ী বায়ুমন্ডল) এবং কখনও লেজও প্রদর্শন করে । ধূমকেতুর নিউক্লিয়াসের ওপর সূর্যের বিকিরণ ও সৌরবায়ুর প্রভাবের কারণে এমনটি ঘটে। ধূমকেতুর নিউক্লিয়াস বরফ, ধূলা ও ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র পাথুরে কণিকার একটি দুর্বল সংকলনে গঠিত। প্রস্থে কয়েকশ মিটার থেকে দশ কি.মি. এবং লেজ দৈর্ঘ্যে কয়েকশ কোটি কি.মি. পর্যন্ত হতে পারে । মানুষ সুপ্রাচীন কাল থেকে ধূমকেতু পর্যবেক্ষণ করছে।

একটি ধূমকেতুর পর্যায়কাল কয়েক বছর থেকে শুরু করে কয়েকশ’ হাজার বছর পর্যন্ত হতে পারে। ধারণা করা হয় স্বল্পকালীন ধূমকেতুর উৎপত্তি কুইপার বেল্ট থেকে যার অবস্থান নেপচুনের কক্ষপথের বাইরে এবং দীর্ঘকালীন ধূমকেতুর উৎপত্তি ওরট মেঘ থেকে, যা সৌরজগতের বাইরে একটি বরফময় বস্তুর গোলাকার মেঘ। আমাদের সৌরজগতের বড় গ্রহগুলোর ( বৃহস্পতি, শনি, ইউরেনাস ও নেপচুন) অথবা সৌরজগতের খুব কাছ দিয়ে পরিক্রমণকারী নক্ষত্রের কারণে ওরট মেঘে যে মাধ্যাকর্ষণ বল ক্রিয়া করে তাতে বস্তুগুলো সূর্যের দিকে ছুটে আসে এবং তখনি কমার উৎপত্তি হলে আমরা ধূমকেতু দেখি। বিরল কিছু ধূমকেতু অধিবৃত্তাকার কক্ষপথে সৌরজগতের ভেতরে প্রবেশ করে এসব গ্রহের মাধ্যমে আন্তনাক্ষত্রিক স্থানে নিক্ষিপ্ত হতে পারে।

বিস্তারিত...

বিষয়শ্রেণী অনুসন্ধান



- bn.wikipedia তে খোঁজার জন্য , এখানে ক্লিক করুন

আজকের ভিডিও


(ভিডিও দেখার জন্য ক্লিপ চালান বোতামে ক্লিক করুন। যদি ভিডিও না দেখা যায়, তাহলে মেনুতে ক্লিক করে অন্য ভিডিও প্লেয়ার নির্বাচন করুন।)


Dimostrazione degli effetti della viscosità.

বিজ্ঞান বিষয়ক আরও ভিডিওর জন্য এখানে খুঁজুন commons:Category:Science videos, commons:Category:Technology videos এবং commons:Category:Industry videos

নির্বাচিত চিত্র



মার্স পাথফাইন্ডার কর্তৃক গৃহীত মঙ্গল গ্রহের ভূমি আচ্ছাদনকারী ককটি শিলার পৃষ্ঠতলের চিত্র।

আপনি জানেন কি...


  • ... প্রকৃতিতে সবচেয়ে বেশী জনঘনত্ব যে জীবের তা হল ব্যাক্টেরিয়ার, সবচেয়ে বেশী জৈববৈচিত্রও আছে ব্যাক্টেরিয়াদের। কিন্তু ভাইরাসদের যদি জীবিত ধরা যায়, তবে সর্বাধিক গড় প্রাকৃতিক জনঘনত্ব হবে ব্যাক্টেরিয়োফাজের।
  • ... হেপাটাইটিস যত প্রকার ভাইরাস দ্বারা সংঘটিত হতে পারে, তারা প্রায় সবাই ভিন্ন ভিন্ন পরিবারের (Family)। কিন্তু তারা একই ধরণের রোগ ঘটায়।
  • ... ব্যাক্টেরিয়ফাজ ভাইরাসকে বিভিন্ন প্রাণীর ব্যাক্টেরিয়া জনিত রোগের প্রতিকারে ব্যবহার করা যেতে পারে।
  • ... স্পিরূলিনা নামক শৈবাল আর্সেনিক জনিত রোগের প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।
  • ... মানুষের দেহে যতগুলো কোষ আছে, তার প্রায় ১০ গুন আছে ব্যাক্টেরিয়া
  • ... দিন দিন ব্যাক্টেরিয়ার অ্যান্টিবায়োটিক রোধী বৈশিষ্ঠ্য বেড়েই চলছে।
প্রবেশদ্বার:বিজ্ঞান/আপনি যা করতে পারেন
উইকিসংবাদে বিজ্ঞান   উইকিউক্তিতে বিজ্ঞান   উইকিবইয়ে বিজ্ঞান   উইকিসংকলনে বিজ্ঞান   উইকিঅভিধানে বিজ্ঞান   উইকিবিশ্ববিদ্যালয়ে বিজ্ঞান   উইকিমিডিয়া কমন্সে বিজ্ঞান উইকিউপাত্তে বিজ্ঞান উইকিভ্রমণে বিজ্ঞান
উন্মুক্ত সংবাদ উৎস উক্তি-উদ্ধৃতির সংকলন উন্মুক্ত পাঠ্যপুস্তক ও ম্যানুয়াল উন্মুক্ত পাঠাগার অভিধান ও সমার্থশব্দকোষ উন্মুক্ত শিক্ষা মাধ্যম মুক্ত মিডিয়া ভাণ্ডার উন্মুক্ত জ্ঞানভান্ডার উন্মুক্ত ভ্রমণ নির্দেশিকা

সার্ভার ক্যাশ খালি করুন

Dieser Artikel basiert auf dem Artikel প্রবেশদ্বার:বিজ্ঞান aus der freien Enzyklopädie Wikipedia und steht unter der Doppellizenz GNU-Lizenz für freie Dokumentation und Creative Commons CC-BY-SA 3.0 Unported (Kurzfassung). In der Wikipedia ist eine Liste der Autoren verfügbar.